মেহেদি পাতার ঔষধি গুনাগুণ

Posted by Biomed Admin 27/03/2017 0 Comment(s)

মেহেদি আমাদের কাছে অতি পরিচিত একটি গাছের নাম। বিভিন্ন বিউটি পার্লারে, বৌ সাজাতে, চুল রাঙাতে ইদানিং মেহিদির বহুল ব্যবহার লক্ষ্য করা যায়। মেহেদি বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন নামে পরিচিত। তবে অধিকাংশ মানুষ মেহেদি নামেই চিনে থাকে।

এর ফুল, ফল ও পাতা শূল রোগের ঔষধ হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

মেহেদি পাতার রস ১ চা চামচ করে দিনে ২বার পানি বা দুধ এবং তার সঙ্গে একটু চিনি মিশিয়ে খেলে ১ সপ্তাহের মধ্যে শরীরের নানাবিধ উপকার পাওয়া যায়।

১। জন্ডিসঃ জন্ডিস হলে মেহেদি গাছের মূল আতপ চাল ধোয়া পানি দিয়ে ঘষে ২ চা চামচ ৮ থেকে ১০ দিন সকালে ও বিকালে খেলে ৪ থেকে ৫ দিনেই রোগী আরোগ্য লাভ করে। ঔষধ খাওয়ার সময় ডাবের পানি ও আখের রস খেলে আরো ভাল কাজ করে।

২। ব্যথা প্রশমনঃ মেহেদি পাতার রস ও সরষের তেল মিশিয়ে মালিশ করলে ব্যথা কমে। এমনকি গরুর ঘাড়ে ব্যথা হলে এই গাছের পাতা বেটে গরম করে লাগিয়ে দিলে উপকার পাওয়া যায়।

৩। ঘামে দুর্গন্ধঃ ঘামে দুর্গন্ধ হলে মেহেদি পাতা সিদ্ধ করে গোসল করলে উপকার পাওয়া যায়।

৪। পায়ের জ্বলাপোড়া রোধঃ তাজা মেহেদি পাতা ভিনেগারে ভিজিয়ে এক জোড়া মোজার ভিতরে রেখে দিন। এবার এই মোজাটি পায়ে সারারাত পরে থাকুন। এটি পায়ের জ্বলাপোড়া কমিয়ে দিবে অনেকখানি।

 ৫। মাথাব্যথা হ্রাস করতেঃ মেহেদি গাছের ফুল মাথা ব্যথা দূর করতে সাহায্য করে। মেহেদি গাছের ফুল পেস্ট করে এর সাথে ভিনেগার মিশিয়ে নিন। এটি কপালে অথবা ব্যথার স্থানে লাগিয়ে রাখুন। এছাড়া আপনি মেহেদির পেস্টও ব্যবহার করতে পারেন।

৬। মুখের ঘা ভাল করতেঃ এই মেহেদি দিয়ে তৈরি করে নিতে পারেন, মাউতওয়াশ। মেহেদি পাতা গুঁড়ো পানিতে গুলিয়ে নিন। এবার এটি দিয়ে কুলকুচি করুন। এটি মুখের ঘা দ্রুত ভাল করে থাকে এবং মুখ জীবাণুমুক্ত করে তোলে।

 ৭। টাক পড়া রোধঃ সরিষার তেলের সাথে কয়েকটি মেহেদি পাতা দিয়ে জ্বাল দিন। এটি ঠান্ডা হয়ে গেলে মাথার তালুতে ব্যবহার করুন। এটি টাক পড়া প্রতিরোধ করবে।

৮। খুশকি দূর করতেঃ খুশকি চুলের সবচেয়ে বড় শত্রু। এই খুশকি দূর করতে মেহেদি বেশ কার্যকরী। সরিষা তেল, মেথি, মেহেদি পাতা সিদ্ধ একসাথে যোগ করে এটি চুলে ব্যবহার করুন। ১ ঘন্টার পর শ্যাম্পু করে নিন। এটি খুশকি দূর করে চুলকে করে তুলবে ঝলমলে সুন্দর।

৯। ঘামচির জ্বালাপোড়া রোধ করতেঃ মেহেদির পেস্ট পিঠ, ঘাড় এবং ঘামাচি আক্রান্ত অন্যান্য স্থানে লাগান। এটি ঘামচির চুলকানি এবং জ্বালাপোড়া হ্রাস করতে সাহায্য করবে।

১০। বাতের ব্যথা রোধেঃ বাত এবং বাতজনিত সবরকম ব্যথা দূর করতে মেহেদি তেল বেশ কার্যকর। ব্যথার স্থানে মেহেদি তেল ম্যাসাজ করে লাগিয়ে নিন। ভাল ফল পেতে এটি প্রতিদিন এক থেকে দুই মাস করুন।

[ তথ্যসূত্রঃ ইন্টারনেট ]

Write a Comment